Saturday, 13 Aug 2016 04:08 ঘণ্টা

বন্যার্তদের সেবায় অভিনেত্রী বিথী রানী সরকার

Share Button

বন্যার্তদের সেবায় অভিনেত্রী বিথী রানী সরকার

প্রথম বাংলা নিউজ : মানুষ তো মানুষেরই জন্য। তবে ফেসবুকীয় এই অতি আধুনিক যুগে আমাদের সব আবেগ কিংবা সহানুভূতি ভার্চুয়ালেই বন্দি। যখন পাশের বাড়িতে আগুনে পুড়ে মানুষ মরছে আমরা তাদের দেখতে না গিয়ে ফেসবুকে বসে স্ট্যাটাস দেই। ঠিক তেমনি সারা দেশের কিছু জেলা ভাসছে বন্যার পানিতে। ভেসে গেছে লাখো মানুষের বসতঘর, ফসল জমি, গবাদিপশুসহ নানা সম্পদ। ভাসছে মানুষ। খাদ্যের অভাব, বিশুদ্ধ পানির অভাব, পানিবাহিত রোগে আক্রান্ত মানুষগুলোর চিকিৎসার অভাব। অভাব সহানুভূতিরও। তখনও আমরা ফেসবুকে আবেগীয় স্ট্যাটাস দিয়ে দায় সাড়ছি। তবে কেউ কেউ ছুটে গেছেন ভার্চুয়াল জগৎকে তুড়ি মেরে রক্ত-মাংসের মানুষ হয়েই। এর মধ্যে আছেন বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি সংস্থার লোকজন। তাদের মধ্যে আছেন অনেক সেলিব্রেটিও। অভিনেত্রী বিথী রানী সরকার তাদের মধ্যে অন্যতম। জানা গেছে, ওয়ার্ল্ড ইজ বিউটিফুল সংগঠনের উদ্যোগে বন্যার্তদের পাশে দাঁড়াতে গাইবান্ধায় ছুটে গেছেন এই মডেল ও অভিনেত্রী। সেখানে তিনি কয়েকদিন অবস্থান করে বন্যাক্রান্ত মানুষের মধ্যে খাবার, বস্ত্র বিতরণ করেছেন। সেইসঙ্গে বন্যায় উদ্ভূত সমস্যা মোকাবেলায় নানা পরামর্শও দিয়েছেন। এ প্রসঙ্গে বিথী বলেন, ‘নিজের ভেতরের তাগিদ থেকেই গাইবান্ধায় ছুটে গেছি। দেশের ভেতরে এত মানুষকে পানিবন্দি রেখে আসলে স্বাভাবিক জীবন যাপন করাটা কষ্টকর। তাই নিজের সাধ্যমতো যতটুকু পারা যায় কিছু মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছি। প্রত্যেকটি অঞ্চলেই অসংখ্য প্রতিষ্ঠিত মানুষ রয়েছেন, সমাজসেবী রয়েছেন। সবাই মিলে নিজ নিজ অঞ্চলের বন্যার্তদের দায়িত্ব নিলে রাষ্ট্রের ওপর চাপ পড়ে না। বিপদগ্রস্ত মানুষগুলোও সাহস পাবে।’প্রসঙ্গত, ২০১০ সালে গ্রামীণফোনের মডেল হয়ে বিথি রানী সরকার মিডিয়া জগতে পদার্পণ করেন। এরপর দীর্ঘদিনে অসংখ্য বিজ্ঞাপন, নাটক, টেলিফিল্ম ও চলচ্চিত্রে কাজ করেছেন। পেয়েছেন একাধিক পুরস্কার-স্বীকৃতি। বর্তমানে বেশ কিছু নাটক ও চলচ্চিত্রের কাজ নিয়ে ব্যস্ত তিনি।

এই সংবাদটি 1,021 বার পড়া হয়েছে