Saturday, 04 Mar 2017 11:03 ঘণ্টা

মাজার নিয়ে অশৃঙ্খলা করলে মাঝা ভেঙ্গে দেবো . শ্রীমঙ্গল থানার ওসি

Share Button

মাজার নিয়ে অশৃঙ্খলা করলে মাঝা ভেঙ্গে দেবো . শ্রীমঙ্গল থানার ওসি

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে কথিত ৭ পীরের নূরে দরবারিয়া মোতাহিরের তৈরীকৃত মাজার পরিদর্শন করলেন সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার শ্রীমঙ্গল সার্কেল আশফাকুলজ্জামান খন্দকার ।

শ্রীমঙ্গলের লালবাগ মৃত নূর মিয়ার ছেলে মোতাহির মিয়া স্বপ্নে দেখে নিজ বাড়ির সামনে নাম বিহীন ভূয়া ৭ পীরের নাম না দিয়ে মাজার তৈরী করেন। মোতাহির ওলি আওলিয়াদের নামে মাজার তৈরী করে মাজারের ও ইসলাম ধর্মের অবমাননা করছে । ভন্ডপীর ও জ¦ীনের বাদশা মোতাহির কর্তৃক ভূয়া ৭টি কবরস্থান বানিয়ে ৭ পীরের মাজার নাম ধারন করে জনগণের সাথে প্রতারনা করছে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ। এই অভিযোগ এনে প্রসাশসনের কাছে গত ২২ ফেব্রুয়ারি এলাকাবাসি ৭ পৃষ্ঠায় স্বাক্ষর সম্মলিত একটি অভিযোগ দায়ের করেন ।
এই অভিযোগের পরিপেক্ষিতে গত শুত্রুবার সকাল ১১ টায় শ্রীমঙ্গল লাল এলাকাতে কথিত ৭ পীরের তৈরী মাজার পরিদর্শ করতে আসেন সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার শ্রীমঙ্গল সার্কেল আশফাকুলজ্জামান খন্দকার ,শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনচার্জ কে এম নজরুল ইসলাম , শ্রীমঙ্গল থানার সেকেন্ড অফিসার এস আই সৈয়দ মাহবুবুর রহমান, এসময় উপস্থিত ছিলেন পূর্ব শ্রীমঙ্গল জামে মসজিদের ইমাম মো: জয়নুল আবেদীন, শ্রীমঙ্গল ৩ নং ইউপি চেয়ারম্যান ভানু লাল রায়,লাল বাগ এলাকার ইউপি সদস্য আব্দুস সালাম রাজা ,সাংবাদিকরা এবং লালবাগ এলাকার মুরুব্বি গণ । 7 bondho pir pic04
সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার শ্রীমঙ্গল সার্কেল আশফাকুজ্জামান খন্দকার কথিত ৭ পীরের নূরে দরবারিয়া মাজারের প্রতিষ্ঠিাতা মোতাহির কে কথিত মাজার ও ৭ পীরের ৭টি কবর সম্পর্কে বেশ কিছু প্রশ্ন করেন। কিন্ত প্রশ্নের উত্তরে উপর দিকে ঈঙ্গিত করে বলে তিনি জানেন? । অন্য এক প্রশ্নের জবাবে মোতাহির তার পিতার নাম ছাড়া আর কিছুই বলতে পারেননি এসময় মোতাহির তার চোখ বন্ধ করে কথা বলেন । সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার তিনি এলাকাবাসি কে বলেন আমরা দুই পক্ষ কে থানাতে ডেকে বসে বিষয়টার সমাধান করবো।এ বিষয় নিয়ে কেহ যেন আইন শৃঙ্খলা বঙ্গ না করার অনুরোধ করেন ।
পরে শ্রীমঙ্গল থানার অফিসার ইনচার্জ কে এম নজরুল ইসলাম এলাকাবাসি কে উদ্দেশ্য করে বলেন, কেউ মাজার নিয়ে অশৃঙ্খলা করলে আমি যদি এই চেয়ারের বসা থাকি তাহলে তার মাঝা ভেঙ্গে দেবো, সে যেই হউক। আমরা পরে তিনি আরোও বলেন ,দুপক্ষের লোকজন নিয়ে শান্তি পূর্ণ ভাবে এই সমস্যার সমাধান করবো।
এসময় এলাকাবাসি সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার শ্রীমঙ্গল সার্কেল কে জানায় , আমরা কথিত ৭ পীরের মাজার তৈরীকারী মোতাহির ও তার সহযেগীদের আইনী শাস্তি চাই। কথিত মাজার তৈরীকারীর বাড়ির সামনে আজ থেকে ৪/৫ বছর আগে যে জায়গাতে ৭ পীরের মাজার তৈরী করেছে মোতাহির এর বাড়ির সামনে অতীতে গোবরের গর্ত ছিল এবং গোবরের গর্তের সামনে একটি টং দোকান ছিল।
পূর্ব শ্রীমঙ্গল জামে মসজিদের ইমাম মো: জয়নুল আবেদীন জানান. এখানে অতীতে কোন কারো কবর ছিল না । সে নিজের মনগড়া রাতের আধাঁরে ভূয়া মাজার তৈরী করে। তাকে অনেক বার জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে যে এই জায়গাতে কাদের কবর রয়েছে ? এবং এই ৭ পীরের নাম কি ? মোতাহির কথিত ৭ পীরের নাম বলতে নারাজ । তার সকল উত্তর সব কিছু আল্লাহ জানেন। তিনি কোন পীরের মুরিদ সে নিজেও জানে না , মাজার সম্পর্কে তার কোন ধারণা নাই এটা সম্পূর্ণ মিথ্যা ,ভূয়া নিজের মনগড়া ভূয়া মাজার তৈরী করে ধর্মে নামে সাধারণ ওলিমনা মানুষকে টগাচ্ছে । আমরা এলাকাবাসি ওলি আওলিয়া ও মাজার ভক্ত কিন্ত এধরণের মিথ্যা ভূয়া মাজারের নামে প্রতারণা কখনোও মেনে নিতে পারি না । তাই প্রসাশনের প্রতি আমাদের এলাকাবাসির দাবী বিষয়টি সুষ্টট তদন্ত সাপেক্ষে অবিলম্বে কথিত মাজার ভন্ড পীরের মাজার উচ্ছেদ পূর্বক মোতাহিরের শাস্তি চাই ।

7 pir news pic 02

এই সংবাদটি 1,036 বার পড়া হয়েছে